বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১ ১৩ই কার্তিক ১৪২৮
 
বসিলার জঙ্গি আস্তানায় অভিযান শেষ, জেএমবির শীর্ষ নেতা আটক
প্রকাশ: ০১:০৮ pm ০৯-০৯-২০২১ হালনাগাদ: ০১:১৮ pm ০৯-০৯-২০২১
 
 
 


ময়মনসিংহের খাগডহর এলাকা থেকে গত ৪ সেপ্টেম্বর গ্রেপ্তার চার জঙ্গির দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বসিলায় জঙ্গি আস্তানার সন্ধান পায় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-২)। তাদের কথা অনুযায়ী বাসাটিতে জেএমবির শীর্ষস্থানীয় একজন নেতা থাকতেন। এসব তথ্যের ভিত্তিতে বসিলায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। আস্তানা থেকে আটক জঙ্গির নাম এমদাদুল হক ওরফে উজ্জ্বল মাস্টার।

বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় বসিলার জঙ্গি আস্তানায় অভিযান শেষে র‌্যাব সদরদপ্তরের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এসব কথা জানান।

তিনি বলেন, সকাল সাড়ে ৮টার দিকে র‌্যাবের ডগ স্কোয়াড, বোম ডিসপোজেবল ইউনিট ও ফরেনসিক টিম বসিলার চার তলা একটি ভবনে প্রবেশ করে। এর পর ডগ স্কোয়াড দিয়ে ঘিরে রাখা চার তলা ভবনের দ্বিতীয় তলায় তল্লাশি চালানো হয়। দ্বিতীয় তলায় বিছানার ভেতর লুকিয়ে রাখা একটি অস্ত্র উদ্ধার করেছে ডগ স্কোয়াড।

কমান্ডার খন্দকার আল মঈন আরো বলেন, ময়মনসিংহ থেকে গ্রেফতার জেএমবি’র ৪ সদস্যকে জিজ্ঞাসাবাদ করে বসিলার এই জঙ্গি আস্তানার সন্ধান পাওয়া যায়। গ্রেফতার জঙ্গিরা জিজ্ঞাসাবাদে বসিলা থেকে আটক জঙ্গির বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য দিয়েছিল র‌্যাবকে। এ সব তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব ঢাকার বাইরে জামালপুর ও রাজশাহীসহ বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালায়। পরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার মধ্য রাত থেকে বসিলার জঙ্গি আস্তানাটিতে অভিযান চালানো হয়। অভিযানে বর্তমান সময়ে জেএমবি’র ওই শীর্ষ নেতাকে আটক করতে সক্ষম হয় র‌্যাব।

তিনি বলেন, অভিযানস্থল থেকে পিস্তল, গুলি, নগদ পৌনে তিন লাখ টাকা, রাসায়নিক দ্রব্য, দেশীয় পদ্ধতিতে তৈরি বুলেট প্রুপ জ্যাকেট ও বেশ কিছু জিহাদি বই জব্দ করা হয়। আস্তানা থেকে আটক জঙ্গিকে র‌্যাব সদর দফতরে নেওয়া হয়েছে। সেখানে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এছাড়া সে জেএমবি’র কোন পর্যায়ের সদস্য তা জিজ্ঞাসাবাদ শেষে জানা যাবে।

খন্দকার আল মঈন বলেন, বসিলার বাসার দারোয়ান ও আটক জঙ্গিকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, সে চলতি মাসের ২ তারিখে ভবনটি’র দোতালায় একটি ফ্ল্যাট ভাড়া নেয়। বাসা ভাড়া নেওয়ার সময় প্রিন্টিং প্রেসে কাজ করার কথা বলে। ভাড়া নেওয়ার সময় ৫ হাজার টাকা অগ্রিম দেয়। এক সপ্তাহের মধ্যে পরিবারের লোকজন এলে জাতীয় পরিচয়পত্র দেবে এমন শর্তে বাসাটি ভাড়া নেয় আটক জঙ্গি ও আরেকজন। বাসাটিতে আরও দুইজন লোকের আসা যাওয়া ছিল। তারা গতকাল বাসাটি থেকে বের হয়ে যায় বলেও জানান তিনি।
সূত্র : বাসস

 
 

আরও খবর

 
 
 
 
 
 
 
 
©newsofbd24.com